ঐতিহাসিক বদর যুদ্ধের ৩১৩ জন সাহাবী আলাইহিস সালাম উনাদের পবিত্র নাম মুবারক জানুন……….

12118726_1692222581010374_4794244714532310308_n

হযরত ছাহাবী কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদের লক্বব উনাকে পুরোপুরি লিখলে পুরো যিন্দীগি শেষ হয়ে যাবে কিন্ত লেখা চলতেই থাকবে বরং কলম হাত থেকে পড়বে না। সুবহানাল্লাহ। যতদিন আছি দুনিয়াতে ততদিন উনাদের লক্বব মুবারক পুরোপুরি লিখে যাবো ইনশা অল্লাহ, ইয়া মহান মালিকে আযম উনার সম্মানাথে সকল কে বুঝর এবং আদব অনুযায়ী লেখার তাওফীক দান করুন … আমীন।

Continue reading

নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদের মর্যাদা-মর্তবা, ফাযায়িল-ফযীলত, শান-শওকত মুবারক সম্পর্কে অবগত হও।’

হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনারা হলেন, হযরত নবী-রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের পর সর্বশ্রেষ্ঠ মর্যাদার অধিকারী। তাই সকল মুসলমান উনাদের জন্য দায়িত্ব কর্তব্য হচ্ছে- পবিত্র মুহররমুল হারাম শরীফ মাসসহ সারা বৎসর হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদের ফাযায়িল-ফযীলত ছানা-সিফত মুবারক বর্ণনা করা ও উনাদের প্রতি মুহব্বত প্রকাশ করা।

যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, পবিত্র মুহররম শরীফ মাসসহ সারা বৎসরই হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদের ফাযায়িল-ফযীলত ও ছানা-সিফত মুবারক বর্ণনা করা ও উনাদের মুহব্বত প্রকাশ করা প্রত্যেক মুসলমানের জন্য দায়িত্ব ও কর্তব্য। তবে বিশেষভাবে পবিত্র মুহররম শরীফ মাসে উনাদের ফাযায়িল-ফযীলত ও ছানা-সিফত মুবারক বর্ণনা করা ও মুহব্বত প্রকাশ করতে বলার Continue reading

মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক তিনি ও উনার হযরত ফেরেশতা আলাইহিমুস সালাম উনারা নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার উপর ছলাত পাঠ করেন।

হে ঈমানদারগণ! তোমরাও উনার প্রতি ছলাত ও সালাম পাঠ কর অত্যন্ত আদব ও শরাফতের সাথে।’ পবিত্র মীলাদ শরীফ নতুন কোনো বিষয় নয়; বরং হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনারাই পবিত্র মীলাদ শরীফ উনার মজলিস করেছেন। যা অসংখ্য পবিত্র হাদীছ শরীফ উনাদের দ্বারা সুস্পষ্টভাবে প্রমাণিত। অতএব, পবিত্র মীলাদ শরীফ উনাকে অস্বীকার করা মূলত পবিত্র হাদীছ শরীফ উনাকে অস্বীকার করা যা কাট্টা কুফরী এবং জাহান্নামী হওয়ার কারণ।যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, যামানার মুজাদ্দিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুল আউলিয়া, ইমামুল আইম্মাহ, কুতুবুল আলম, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কুরআন শরীফ উনার ‘পবিত্র সূরা আহযাব শরীফ’ উনার ৫৬ নম্বর পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক ফরমান, “নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক তিনি ও উনার হযরত ফেরেশতা আলাইহিমুস সালাম উনারা নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার উপর ছলাত পাঠ করেন। হে ঈমানদারগণ! তোমরাও উনার প্রতি ছলাত ও সালাম পাঠ কর পাঠ করার মতো।” বস্তুত বান্দার প্রতি মহান আল্লাহ পাক উনার তরফ থেকে সরাসরি নির্দেশ মুবারক হচ্ছে তারাও যেন নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি ছলাত ও সালাম পাঠ করেন অত্যন্ত আদব ও শরাফতের সাথে।

Continue reading